ঐক্যশ্রী স্কলারশিপ 2022 অনলাইন কিভাবে আবেদন করবে ?

ঐক্যশ্রী স্কলারশিপ অনলাইন আবেদন পদ্ধতি |Aikyashree Scholarship 2022-23 Online Apply | ঐক্যশ্রী স্কলারশিপ চেক |ঐক্যশ্রী স্কলারশিপ কাদের জন্য | WBMDFC Scholarship | ঐক্যশ্রী স্কলারশিপ 2022

অবশেষে শুরু হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গের মেধাবী সংখ্যালঘু ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য বৃত্তি তথা ঐক্যশ্রী স্কলারশিপ ( Aikyashree Scholarship ) । প্রায় প্রতি বছরই অসংখ্য মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক বা কলেজের শিক্ষার্থীরা ঐক্যশ্রী বৃত্তির আবেদনে উত্তীর্ণ হয়। আজকের প্রতিবেদনে এই বৃত্তির জন্য আবেদনের পদ্ধতি, শিক্ষাগত যোগ্যতা নম্বরসহ কত টাকা পাওয়া যাবে তার বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

বিগত 15 আগস্ট থেকে অনলাইন প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে। ঐকশ্রী স্কলারশিপ কে মূলত তিনটি ভাগে ভাগ করা হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গের ছাত্রছাত্রীরা নির্দিষ্ট ক্লাস ভিত্তিক এই স্কলারশিপে আবেদনের উপযোগ্য।

স্কলারশিপের নাম ঐক্যশ্রী কলারশিপ
প্রদানকারী দপ্তর পশ্চিমবঙ্গ সংখ্যালঘু বিভাগ ও অর্থ নিগম (WBMDFC)।
আবেদনের মাধ্যম অনলাইনের মাধ্যমে
আবেদনের যোগ্য সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের পড়ুয়ারা। (যেমন- খ্রিষ্টান, শিখ, মুসলিম, বুদ্ধিস্ট, পার্সি ও জৈন)।
টাকার পরিমাণ বছরে 1100/- টাকা থেকে 16,500/- টাকা পর্যন্ত পাওয়া যায়।
আবেদন শুরু তারিখ
আবেদনের শেষ তারিখ-
অফিশিয়াল ওয়েবসাইট wbmdfcscholarship.org

প্রিম্যাট্রিক স্কলারশিপ

এক্ষেত্রে পশ্চিমবঙ্গের প্রথম থেকে দশম শ্রেণী পর্যন্ত পাঠরত ছাত্রছাত্রীরা প্রিম্যাট্রিক স্কলারশিপে আবেদন করতে পারে। আবেদনকারীর পারিবারিক বার্ষিক আয় দু লাখ টাকার নিচে হতে হবে। পশ্চিমবঙ্গ সরকার দ্বারা পরিচালিত প্রিমেট্রিক স্কলারশিপ এর ক্ষেত্রে ছাত্র-ছাত্রীরা 1,100 থেকে 11,000 টাকা অবধি বার্ষিক স্কলারশিপ পেতে পারে।

আবেদন করতে কি কি লাগবে

  • কোন স্কুলে ভর্তি তথ্য অর্থাৎ ভর্তির রশিদ বা মার্কশিট। অবশ্যই স্কুলের DISE কোড জানতে হবে।
  • জন্ম সার্টিফিকেট
  • আধার কার্ড (ঐচ্ছিক)ও মোবাইল নম্বর।
  • ব্যাংকের পাসবুক। ছাত্র-ছাত্রীদের ব্যাংকের বই না থাকলে তারা নিজেদের মায়ের ব্যাংকের পাশবুক ব্যবহার করতে পারে।
  • ইনকাম সার্টিফিকেট
  • অনলাইনে এপ্লিকেশন করার পর তার প্রতি লিপিটি উপরিক্ত তথ্যাদির সাথে নিজ নিজ স্কুলে জমা করে আসতে হবে।

পোস্ট ম্যাট্রিক স্কলারশিপ

এটি শুধুমাত্র একাদশ শ্রেণি থেকে পিএইচডি কোর্সের শিক্ষার্থীদের জন্য চালু করা হয়েছে।

আবেদন করতে কি কি লাগবে

  • কোন স্কুলে ভর্তি তথ্য অর্থাৎ ভর্তির রশিদ বা মার্কশিট। অবশ্যই স্কুলের DISE কোড জানতে হবে।
  • বিগত বার্ষিক পরীক্ষার মার্কশিট।
  • আধার কার্ড ও মোবাইল নম্বর।
  • ব্যাংকের পাসবুক।
  • ইনকাম সার্টিফিকেট
  • অনলাইনে এপ্লিকেশন করার পর তার প্রতি লিপিটি উপরিক্ত তথ্যাদির সাথে নিজ নিজ স্কুলে জমা করে আসতে হবে।

মেরিট কাম মিনস স্কলারশিপ

পশ্চিমবঙ্গ যে সমস্ত ছাত্রছাত্রী দুস্থ ও মেধাবী তাদের কথা মাথায় রেখে পশ্চিমবঙ্গ সরকার মেরিটকাম মিনস স্কলার্শিপ চালু করেছে। এই স্কলারশিপের মূল উদ্দেশ্য হলো মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের বেশি পরিমাণ বৃত্তি দিয়ে তাদেরকে পড়াশোনায় আরো মনোযোগী করে তোলা।

এই স্কলারশিপের জন্য যোগ্য হতে গেলে একজন শিক্ষার্থীকে অবশ্যই

  • পশ্চিমবঙ্গের স্থায়ী বাসিন্দা ও তার সঙ্গে সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গে অবস্থিত স্বীকৃত প্রতিষ্ঠান থেকে স্নাতক স্নাতকোত্তর পেশাদারী কারিগরি পড়াশোনায় পাঠানো তো থাকতে হবে অথবা পশ্চিমবঙ্গের বাইরে কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যেগুলি হল আই.আই.টি(IIT), আই.আই.এম(IIM) ,এন.আই.টি(NIT), এন.আই.এফ.টি(NIFT), আই.আই.এফ.টি(IIFT) প্রতিষ্ঠানে পড়াশোনা করলেও স্কলারশিপে আবেদনের যোগ্য।
  • আবেদনকারী ছাত্রছাত্রীর পরিবারের বার্ষিক আয় ২ লাখ ৫০ হাজার টাকার নিচে হতে হবে।
  • একটি ছাত্র বা ছাত্রীর কেবলমাত্র একটি প্রতিষ্ঠান থেকে বৃত্তি বা স্কলারশিপ পেতে পারে।
  • শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে বার্ষিক সর্বোচ্চ ৩৩ হাজার টাকা পর্যন্ত ভিত্তি দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। (খরচ সাপেক্ষে)

আবেদন করতে কি কি লাগবে

  • কোন স্কুলে ভর্তি তথ্য অর্থাৎ ভর্তির রশিদ। অবশ্যই স্কুলের DISE কোড জানতে হবে।
  • বিগত পরীক্ষার মার্কশিট।
  • আধার কার্ড ও মোবাইল নম্বর।
  • ব্যাংকের পাসবুক।
  • বিডিও অফিস থেকে প্রদত্ত ইনকাম সার্টিফিকেট।
  • মাধ্যমিক এডমিট কার্ড।
  • শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে প্রাপ্ত স্বাক্ষরের প্রতিলিপি।
  • অনলাইনে এপ্লিকেশন করার পর তার প্রতি লিপিটি উপরিক্ত তথ্যাদির সাথে নিজ নিজ স্কুলে জমা করে আসতে হবে।

বিশেষ দ্রষ্টব্য

মেরিট কাম মেনস স্কলার্শিপ আবেদন করার সময় ছাত্র-ছাত্রীদের প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে অটোমেটিক তাদের এই স্কলারশিপের আওতায় নিয়ে চলে আসা হয়। এই স্কলারশিপ আবেদন করার ক্ষেত্রে কোন ছাত্র-ছাত্রী ঐচ্ছিক ভাবে নির্দিষ্ট স্কলারশিপ বাছাই করতে পারেনা। ওয়েবসাইটে শিক্ষার্থীদের জন্য যে স্কলারশিপটি প্রাপ্য সেটি তাদের প্রদান করা হয়।

ঐক্যশ্রী স্কলারশিপ স্ট্যাটাস চেক লিংক

Check here

আরও পড়ুন:-

My name is Wasif Hossain. I have been teaching children since graduation as well as writing on various topics with friends. Currently, I am a government teacher. I have also passed many government job exams.